মাদক আসছে কাঁচা মালে! ডিবি পুলিশের অভিযানে এক কেজি গাজা উদ্ধার

ফরিদপুর :
ফরিদপুরের মাদক আসছে বিভিন্ন পন্থায় নানা অভিযানেও মাদকের থাবা প্রতিরোধ করা যাচ্ছে না যেন! ফরিদপুরে নানা মাধ্যমের মধ্যে কাঁচা তরকারি মাধ্যম হিসেবে মাদক চক্র ফরিদপুরে আনছে গাঁজা ও ইয়াবা। চক্রের বিশেষ সদস্যদের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে পড়ছে শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চল পর্যন্ত। উঠতি বয়স থেকে শুরু করে যুব সমাজ আসক্ত হয়ে পড়ছে গাঁজা ও ইয়াবা সেবনে। সমাজে বাড়ছে অস্থিরতা, অপরাধমূলক কাজ। পুলিশের নানা অভিযানও অব্যাহত রয়েছে। ফরিদপুর সদরসহ বেশ কিছু উপজেলায় সম্প্রতিক সময়ে কিছু নৃসংশ হত্যা কান্ডও হয়েছে। এর মধ্যে আলীপুর এলাকায় এক যুবককে হাতুরি পিটা করে হত্যা, চর কমলাপুর এলাকায় গৃহ বধুকে হত্যা ফেলে রাখা, বোয়ালমারী এলাকায় পিটিয়ে একজনকে হত্যা ও মুন্সী বাজার এলাকায় এক ইন্টানি চিকিৎসকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার সহ সি এন্ড বি ঘাট এলাকায় এক তরুনীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে হত্যা নাকি আত্মহত্যা বিষয়টি অনেক কেই নারা দিয়েছে। আমরা সমাজকে শুদ্ধ ও বলিষ্ঠ শক্তির স্পর্শে আনতে চাই। সরকারও দারুন আন্তরিক ভাবে ভংকর মাদকের থাবা থেকে দেশকে রক্ষায় অব্যাহত সংগ্রাম করে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার ফরিদপুর শহরের গোয়ালচামট হাজী শরীয়তুল্লাহ বাজার এলাকায় ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে এক কেজি গাঁজাসহ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে এটা ভাল খবর। সেদিনের প্রত্যক্ষ দেখা কয়েক বাজারের ব্যবসায়ী জানান, অনেক মাদকসহ সাদা পোশাকে পুলিশ এক মাছ বিক্রেতাকে আটক করে মঙ্গলবার রাত ৯:৩০টার দিকে তখন আটক ঐ ব্যক্তি বলছিল এগুলো বাজারের কাঁচা মাল ব্যবসায়ী চুন্নু মন্ডলের। সে মাঝে মধ্যে এগুলো কাঁচা পণ্যের সাথে আনে। এ বিষয়ে ফরিদপুর ডিবি পুলিশের ওসি আহাদ শেখ মুঠো ফোনে মাদক উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। আটক আজিজুল ফকির নগরকান্দা থানার ঘোনা পাড়া এলাকার বাসিন্দা। শরীয়তুল্লাহ বাজারে মাছের ব্যবসার সাথে জড়িত। ফরিদপুর শরীয়তুল্লাহ বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম মোল্যা এ বিষয়ে বলেন, আমাদের সামনেই পুলিশ মাদক উদ্ধার ও গ্রেফতার করেছে। অপরাধী যেই হোক তার শাস্তি হওয়া উচিৎ। বাজারের কাঁচা ও ফল আড়ৎদার বহুমুখী মালিক সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন হাওলাদার জানান, মাদক ব্যবসায়ী যেই হোক তার শাস্তি হওয়া প্রয়োজন দু-একজন দুষ্ট খারাপ লোকের জন্য পুরো ব্যবসায়ীক সমাজ অপবাদ বহন করতে পারে না। প্রশাসন অবশ্যই এই মাদকের নেপথ্যে কারা রয়েছে তাদেরকে খুঁজে বের করবে বলে আমার প্রত্যাশা। মাদক উদ্ধারের বিষয়ে অভিযুক্ত শরীয়তুল্লাহ বাজার আড়ৎ পট্টির নিউ মেসার্স মন্ডল ট্রেডার্সের পরিচালনার দায়িত্বে থাকা মোঃ শামিম মন্ডল ওরফে চুন্নু এর মুঠো ফোন ০১৯২৪-৬৫৯৬১৪ নাম্বারে কথা বললে তিনি এ বিষয়ে পরে কথা বলবেন বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ীরা পুলিশকে অভিনন্দন জানিয়েছে সেই সাথে মাদক চক্রের নেপথ্য হোতাদের খুঁজে বের করে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে।